রোযা সংক্রান্ত ১০টি সংশয়মুলক প্রশ্নোত্তর

১)রোযা রাখা অবস্থায় চুল,নখ কাটা যাবে?
উ:-হ্যা।এতে কোন নিশেধ নাই শরিয়তে।

২)যদি কারো উপর গোসল ফরজ হয়,কিন্তু সে যদি গোসল না করে রোযা রাখা শুরু করে তবে কি তার রোযা হবে?
উ:- হ্যা হবে।এতেই কোন সমস্যা নাই।

৩)রোযা রাখা অবস্থায় যদি সপ্নদোষ হয় তবে কি রোযা নষ্ট হয়ে যাবে?
উ:- না নষ্ট হবে না।কারন ৩ ব্যক্তির উপর কলম উঠিয়ে নেওয়া হয়,তার মধ্যে একজন যে ঘুমন্ত।তাই সপ্নদোষ হওয়াতে সেই ব্যক্তির কোন হাত নেই।

৫)রোযা রাখা অবস্থায় যদি হায়েজ বা পিরিয়ড শুরু হয় তবে কি রোযা হবে??
উ:- না হবে না।রোযা ভেংগে যাবে এবং যতদিন পর্যন্ত হায়েজ চলবে ততদিন রোযা রাখতে পারবে না।রমযানের পরে অন্য কোন মাসে তা কাযা করে নিতে হবে।

৬)রোযা রেখে যদি তারাবি নামায না পড়ে তবে নাকি রোযা সম্পুর্ন হয় না??
উ:-এই কথা ভিত্তিহীন।যদিও তারাবী নামাযের অনেক ফজিলত।কিন্তু এর সাথে রোযার কোন সম্পর্ক নাই।

৭)অনেকেই রোযা রাখে কিন্তু ৫ ওয়াক্ত নামায পড়ে না,তার কি রোযা হবে?
উ:-৫ ওয়াক্ত নামায পড়া অবশ্যই ফরজ।যদি ১, ২ বা ৩ ওয়াক্ত হলেই নামায পড়ে কিন্তু ৫ ওয়াক্ত না তাহলে তার এ রোযা হয়ে যাবে।

৮)সাহরী না খেলে কি রোযা হবে?
উ:-সাহরী খাওয়া সুন্নত এবং এতে অনেক বরকত রয়েছে।এছাড়া ইহুদীদের সাথে মুসলিমদের রোযার পার্থক্যই হচ্ছে সাহরী।কারন তারা সাহরী খায় না।তাই আমাদের সাহরী খাওয়া উচিত।কিন্তু না খেলে রোযা হয়ে যাবে যদি রাতে রোযা রাখার নিয়ত মন থেকে করে থাকে।

৯)রোযা রাখায় অবস্থায় কি স্ত্রীকে ধরা যাবে?
উ:-আপনি সব কিছুই করতে পারবেন শুধু সহবাস ছাড়া।কিন্তু বীর্য বের হলে রোযা ভেংগে যাবে।তাই সেই পর্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে।

১০)রোযা রেখে কেউ যদি ভুলে কিছু খেয়ে ফেলে তবে কি রোযা ভেংগে যাবে??
উ:- না ভাংবে না।কারন এই বিষয়ে হাদিস আছে যে এইটা আল্লাহর পক্ষ থেকেই তাকে খাওনো হয়েছে,তাই সে যেন রোযা না ভাংগে।

Share this Post
Scroll to Top