রোযা ভঙ্গের কারণ

রোযাদার যদি ভুলক্রমে বা না জেনে বা বাধ্য হয়ে কিছু খেয়ে ফেলে, তবে রোযা নষ্ট হবে না, আল্লাহ বলেন :
﴿ ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﻟَﺎ ﺗُﺆَﺍﺧِﺬۡﻧَﺎٓ ﺇِﻥ ﻧَّﺴِﻴﻨَﺎٓ ﺃَﻭۡ ﺃَﺧۡﻄَﺄۡﻧَﺎۚ ﴾ [ ﺍﻟﺒﻘﺮﺓ : ٢٨٦ ]
‘‘হে আমাদের প্রতিপালক! যদি আমরা ভুল করে বসি অথবা অজ্ঞাতসারে দোষে লিপ্ত হই তবে আমাদেরকে পাকড়াও কর না।’’ {সূরা আল-বাকারা : ২৮৬}
আল্লাহ তাআলা বলেন :
﴿ ﺇِﻟَّﺎ ﻣَﻦۡ ﺃُﻛۡﺮِﻩَ ﻭَﻗَﻠۡﺒُﻪُۥ ﻣُﻄۡﻤَﺌِﻦُّۢ ﺑِﭑﻟۡﺈِﻳﻤَٰﻦِ ﴾ [ ﺍﻟﻨﺤﻞ : ١٠٦ ]
‘‘তবে তার জন্য মহা শাস্তি নয় যাকে কুফরী করতে বাধ্য করা হয়েছে কিন্তু তার অন্তর ঈমানে অবিচল।’’ {সূরা আন-নাহাল : ১০৬}
আল্লাহ তাআলা বলেন :
﴿ ﻭَﻟَﻴۡﺲَ ﻋَﻠَﻴۡﻜُﻢۡ ﺟُﻨَﺎﺡٞ ﻓِﻴﻤَﺎٓ ﺃَﺧۡﻄَﺄۡﺗُﻢ ﺑِﻪِۦ ﻭَﻟَٰﻜِﻦ ﻣَّﺎ ﺗَﻌَﻤَّﺪَﺕۡ ﻗُﻠُﻮﺑُﻜُﻢۡۚ ﴾ [ ﺍﻻﺣﺰﺍﺏ : ٥ ]
‘‘যা তোমরা অজ্ঞাতসারে ভুল করেছ তাতে তোমাদের কোন অপরাধ নেই কিন্তু তা তোমাদের সংকল্প থাকলে অপরাধ হবে।’’ {সূরা আল-আহযাব : ৫}
* অতএব, রোযাদার যদি ভুলবশত পানাহার করে তবে ভুলের কারণে তার রোযা নষ্ট হবে না।
* আর কেউ যদি সূর্য ডুবে গেছে অথবা ফজর এখনও হয়নি এরূপ মনে করে পানাহার করে তবে তার অজ্ঞতার কারণে রোযা নষ্ট হবে না।
* যদি কুলি করা অবস্থায় অনিচ্ছা সত্ত্বেও গলায় পানি চলে যায় তবে রোযা নষ্ট হবে না।
* স্বপ্নদোষ হলেও এতে তার কোন ইচ্ছা না থাকায় রোযা ভঙ্গ হবে না।
শাইখ মুহাম্মদ ইবন সালেহ আল-উছাইমীন রহ.
Share this Post
Scroll to Top