ফেতনার যুগে ৪টি উপায়ে ঈমানের উপর দৃঢ় থাকা সম্ভব

(১) কুরআনুল কারীম। তেলাওয়াত করতে হবেএবং তা গবেষণা ও অনুধাবন করে তার প্রতি আমল করতে হবে। আল্লাহ বলেন, كَذَلِكَ لِنُثَبِّتَ بِهِ فُؤَادَكَ “এভাবেই কুরআনের মাধ্যমে আমি তোমার অন্তরকে দৃঢ় করে দিব।”
(সূরা ফুরকান: ৩২)

(২) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম ও পূর্ব যুগে নবী-রাসূলগণের জীবনী পাঠ করতে হবে। আল্লাহ বলেন, وَكُلًّا نَقُصُّ عَلَيْكَ مِنْ أَنْبَاءِ الرُّسُلِ مَا نُثَبِّتُ بِهِ فُؤَادَكَ “আর আমিরসূলগণের সব বৃত্তান্তই তোমাকে বলছি, যদ্দ্বারা তোমার অন্তরকে দৃঢ়-মজবুত করছি।”
(হূদ: ১২০)

(৩) ইলম অনুযায়ী আমল করতে হবে। وَلَوْ أَنَّهُمْ فَعَلُوا مَا يُوعَظُونَ بِهِ لَكَانَ خَيْرًا لَهُمْ وَأَشَدَّ تَثْبِيتًا “ তাদেরকে যে উপদেশ ও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, তারা যদি সে অনুযায়ী আমল করে, তবে তা অবশ্যই তাদের জন্য উত্তম এং তাদেরকে নিজেদের দ্বীনের উপর সুদৃঢ় রাখার জন্য তা উত্তম হবে।”
(নিসা: ৬৬)

(৪) দুয়া। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাহি ওয়া সাল্লাম এই দুয়াটি খুব বেশী বেশী পাঠ করতেন। يَا مُقَلِّبَ الْقُلُوبِ ثَبِّتْ قَلْبِي عَلَى دِينِكَ “হে আল্লাহ অন্তকরণের পরিবর্তনকারী আল্লাহ, আমার অন্তরকে তোমার দ্বীনের উপর অটল-অবিচল রাখ।”
(তিরমিযী)

Share this Post
Scroll to Top