গুরুত্বপূর্ণ কিছু হারাম কাজ যা আমরা নিজের অজান্তেই করে ফেলি।

গুরুত্বপূর্ণ কিছু হারাম কাজ যা আমরা নিজের অজান্তেই করে
ফেলি।
স্বামী ব্যাতিত অন্য কারোর জন্য
সাজা হারাম।
আল কোরআন (আহজাবঃ ৩৩)

গোসলখানায় প্রসাব করা যাবে না। যদি
বাতরুম
আলাদা থাকে
(ইবনে মাজাহঃ ৩০৪)
কেবলামুখি বা তার উল্টো হয়ে প্রসাব,
পায়খানা
করা যাবে না।
(সহিহ বুখারি ৩৯৫,
নাসায়ীঃ ২১, আত
তিরমিজিঃ ৮)
গুলি বা তীরের নিশানা প্রশিহ্মণের
জন্য প্রাণী
ব্যাবহার করা যাবে না। (মুসলিমঃ ৫১৬৭,
সুনানে আবু দাউদঃ ২৮১৭, ইবনে মাজাহঃ
৩১৭০, আত
তিরমিজিঃ ১৪০৯)
ইয়াহুদি, খ্রিষ্টান ও মুশরিক কাউকে
বিয়ে করা
যাবে না। আল কোরআন (সূরা আন নিসা/নুর)

মুর্তি কেনা, বেঁচা, পাহারা দেওয়া
হারাম। আল
কোরআন (মাইদাহঃ ৯০, ইবরাহীমঃ ৩৫)
কারো মুখমণ্ডলে আঘাত করা যাবে না।
আল
হাদিস (মুসলিমঃ ৬৮২১, আবু দাউদঃ ৪৪৯৬,
আহমদঃ
৫৯৯১)
কাপড় পরিধাণ থাকা সত্তেও কারো
গোপন
অঙ্গের জায়গার দিকে দৃষ্টিপাত করা
যাবে না।
(মুসলিমঃ ৭৯৪, তিরমিজিঃ ২৭৯৩, ইবনে
মাজাহঃ ৬৬১,
আহমদঃ ১১৫০১)
আল্লাহ ব্যাতিত কারো নামে কসম করা
যাবে
না। বাপ দাদার নাম, কারো হায়াত,
মসজিদ বা
কোরআন এর নামে কসম করা, মাথায় নিয়ে
সত্যতা
প্রকাশ করা যাবে না। (আবু দাউদঃ ৩২৫০,
নাসায়ীঃ
৩৭৭৮)
কোন প্রাণীকে আগুনে পুড়িয়ে মারা
যাবে না।
আল হাদিস (আবু দাউদঃ ২৬৭৭, আহমদঃ
১৬০৩৪)
যারা এগুলো করে তারা জান্নাতের
গন্ধও পাবে
না। (আবু দাউদঃ ৩৬৬৮, ইবনে মাজাহঃ ২৫২)

Share this Post
Scroll to Top