ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক একজন পুরুষ মোট ১৪ জন নারীর সাথে স্বাভাবিকভাবে দেখা-সাক্ষাত করতে পারবে।

ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক একজন পুরুষ মোট ১৪ জন নারীর সাথে স্বাভাবিকভাবে দেখা-সাক্ষাত করতে পারবে।
মায়ের মত ৫ জন:
১| নিজের মা ২| দুধ মা ৩| খালা ৪| ফুফু ৫| শাশুড়ী

বোনের মত ৫ জন
১| আপন বোন ২| দুধ বোন ৩| দাদী ৪| নানী ৫| নাতনী

মেয়ের মত ৪ জন
১| নিজের মেয়ে ২| ভাইয়ের মেয়ে ৩|বোনের মেয়ে ৪| পুত্রবধু

>> এমনিভাবে একজন মহিলার জন্যেও ১৪ জন পুরুষের সাথে দেখা দেওয়া বৈধ। বাবার মত ৫ জন
১| নিজের বাবা ২| দুধ বাবা ৩| চাচা ৪| মামা ৫| শশুর

ভাইয়ের মত ৫ জন
১| আপন ভাই ২| দুধ ভাই ৩| দাদা ভাই ৪| নানা ভাই ৫| নাতী

ছেলের মত ৪জন
১| নিজের ছেলে ২| ভাইয়ের ছেলে ৩|বোনের ছেলে ৪| মেয়ের জামাতা

এদের ছাড়া বাকিদের থেকে বেঁচে থাকুন। এদের বাহিরে সকলেই আপনার জন্য ফিতনা। কথা বলা হোক তা সরাসরি বা ফোনে, বার্তালাপ হোক তা মোবাইলে বা ফেসবুকে বা চিঠিতে। যা জ্বিনার পথ উন্মুক্ত করে। এবং চরম কবিরাগুনাহের অন্তর্ভূক্ত।
দ্বীনের ফরজ বিধান সমূহ অন্তত মেনে চলুন দেখবেন সমাজে কোন অশান্তি ও কুলসতা নেই। বাকি সুন্নাহ বা নফল নিয়ে না হয় কাল কথা বলব। পর্দা বা হিজাব প্রত্যেক নর-নারীর জন্য ফরজ বিধানের অন্তর্গত। আল্লাহ আমাদের তাওফিক দিন।।

Share this Post
Scroll to Top