আপনি একজন মুসলিম অথচ আপনার একটি বান্ধবী আছে!! তাহলে একটু মিলিয়ে দেখুন, উল্লিখিত অজুহাতের মধ্যে আপনার অজুহাত কোনটি?

আপনি একজন মুসলিম অথচ আপনার একটি বান্ধবী আছে!! তাহলে একটু মিলিয়ে দেখুন, উল্লিখিত অজুহাতের মধ্যে আপনার অজুহাত কোনটি?
________
আমরা বলি :
আমি কিভাবে এমন একজন পাব যে আমার ধর্ম অনুযায়ী আমার জন্য উপযুক্ত? এমন কাউকে পাওয়া যাবে না। আমি যদি এখন একা থাকি তাহলে হয়ত আমার সারাজীবনই একা থাকতে হবে…..
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
দুশ্চরিত্রা নারীকূল দুশ্চরিত্র পুরুষকুলের জন্যে এবং দুশ্চরিত্র পুরুষকুল দুশ্চরিত্রা নারীকুলের জন্যে। সচ্চরিত্রা নারীকুল সচ্চরিত্র পুরুষকুলের জন্যে এবং সচ্চরিত্র পুরুষকুল সচ্চরিত্রা নারীকুলের জন্যে। তাদের সম্পর্কে লোকে যা বলে, তার সাথে তারা সম্পর্কহীন। তাদের জন্যে আছে ক্ষমা ও সম্মানজনক জীবিকা। সুরা আন নুর ২৬
________
আমরা বলি :
এটা তো এমন না যে আমি জিনা (অবৈধ যৌন সঙ্গম) করছি। আমি আমার লিমিট জানি। আমি বেশি কিছুই করছি না। আমি যদি মন থেকে পরিস্কার থাকি তাহলেই তো চলে।
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
হে ঈমানদারগণ, তোমরা শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ করো না। যে কেউ শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ করবে, তখন তো শয়তান নির্লজ্জতা ও মন্দ কাজেরই আদেশ করবে। যদি আল্লাহর অনুগ্রহ ও দয়া তোমাদের প্রতি না থাকত, তবে তোমাদের কেউ কখনও পবিত্র হতে পারতে না। কিন্তু আল্লাহ যাকে ইচ্ছা পবিত্র করেন। আল্লাহ সবকিছু শোনেন, জানেন। সুরা আন #নুর ২১
________
আমরা বলি :
আমি তাকে ভালোবাসি। আমি জানি সে একজনই। তার মত আর কেউ হবে না।
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
… কিন্তু তোমরা কিছু অপছন্দ কর সম্ভবত তোমাদের জন্য তা কল্যাণকর এবং সম্ভবত তোমরা কিছু পছন্দ কর অথচ তা তোমাদের জন্য অকল্যাণকর। বস্তুত তোমরা জাননা, আল্লাহ্‌ই জানেন। সুরাহ বাকারাহ ২১৬
________
আমরা বলি :
আমি এমন ঝুকি নিতে পারব না। তার মত একজন পাওয়া আমার সারাজীবনের ভাগ্য। কেমন হবে সেটা যদি আমি তাকে এখন ছেড়ে দেই এবং যখন আমার বিয়ে করার সামর্থ্য হবে তখন সে না থাকে বা আমার জন্য যে আসবে সে যদি তাঁর মত না হয়? আমার মনে হয়না যে আমি তাঁর মত আর কাউকে পাব।
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
শয়তান তোমাদেরকে অভাব অনটনের ভীতি প্রদর্শন করে এবং অশ্লীলতার আদেশ দেয়। পক্ষান্তরে আল্লাহ তোমাদেরকে নিজের পক্ষ থেকে ক্ষমা ও বেশী অনুগ্রহের ওয়াদা করেন। আল্লাহ প্রাচুর্যময়, সুবিজ্ঞ। সুরা #বাকারাহ : ২৬৮
________
আমরা বলি :
কিন্তু যখন আমি তার সাথে থাকি তখন আমি অনেক ভালো থাকি। তাকে ছাড়া আমি অসম্পূর্ণ। যখন আমি তার সাথে থাকি, তখন একদিন যেন এক ঘণ্টা মনে হয়। এক ঘণ্টা যেন এক সেকেন্ড মনে হয়। সময় যেন চোখের পলকেই চলে যায়।
_________
আল্লাহ্‌ বলেন:
অতএব, তোমাদেরকে যা দেয়া হয়েছে তা পার্থিব জীবনের ভোগ মাত্র। আর আল্লাহর কাছে যা রয়েছে, তা উৎকৃষ্ট ও স্থায়ী, তাদের জন্যে যারা বিশ্বাস স্থাপন করে এবং তাদের পালনকর্তার উপর ভরসা করে। সুরা শুরাহ : ৩৬
________
আমরা বলি :
আমি তাকে ভোলার অনেক চেষ্টা করেছি কিন্তু আমার সত্যিই এতো শক্তি নাই যে আমি তাকে ভুলে থাকতে পারব। আমি যদি তাকে ছেড়ে দিই, তাহলে আমি সত্যিই মরে যাবো। আমি এখান থেকে বের হতে পারব না।
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
… আর যে আল্লাহকে ভয় করে, আল্লাহ তার জন্যে নিস্কৃতির পথ করে দেবেন। (সুরাহ তালাক : ২)
________
আমরা বলি :
আমি এখনি বিয়ে করতে প্রস্তুত নই। আমার তেমন বয়স হয়নি; আমি কোন চাকুরি করি না। আমার ওসব করতে এখন অনেক সময় বাকি। আমি যদি এখনই তাঁর সাথে সম্পর্ক শেষ করে দিই তবে আমি অতদিন পর্যন্ত একা থাকতে পারবনা। ভাই আল্লাহর কাছে দুয়া করেন তিনি যেন আমাকে ধৈর্য দান করেন এবং তাড়াতাড়ি আমার বিয়ের ব্যাবস্থা করেন।
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
ধৈর্য্যর সাথে সাহায্য প্রার্থনা কর নামাযের মাধ্যমে। অবশ্য তা যথেষ্ট কঠিন, বিনয়ী লোকদের ছাড়া অন্যদের নিকট। সুরা #বাকারাহ : ৪৫
________
আমরা বলি :
কেন আল্লাহ্‌ আমার কাছ থেকে আমার ভালবাসার জিনিস নিয়ে যেতে চান?
________
রসুল (স) বলেন:
নিশ্চয়ই, আল্লাহ্‌ যা ইচ্ছা নিয়ে যান, এবং তিনি যাই দান করেন সবই তাঁর, এবং সবকিছুর ব্যাপারে তিনি সময় নির্ধারণ করেছেন… তাই ধৈর্য্য ধারণ কর, তোমরা পুরস্কৃত হবে[ আল বুখারী]
________
আমরা বলি :
কেন ভাই তুমি আমাকে এসব বলছো? তোমার কি আর কোন কাজ নাই? দেখ আমি সব কিছু মানতে রাজি আছি কিন্তু তাকে আমি ছাড়তে পারব না। এই একটা জিনিসই আমি ভালোবাসি আর তুমি আমাকে এটাও ছাড়তে বলছ? আমার জন্য এটা সম্ভব না।
________
আল্লাহ্‌ বলেন:
আপনি কি তাকে দেখেন না যে, তারা প্রবৃত্তিকে উপাস্যরূপে গ্রহণ করে? তবুও কি আপনি তার যিম্মাদার হবেন? সুরা ফুরকান : ৪৩।।

Share this Post
Scroll to Top