ছেলে-মেয়ের বন্ধুত্ব বন্ধুত্ব নাকি নির্লজ্জতা?

কেউ ব্যক্তিগতভাবে নিবেন না
আপনি এই ধরনের নাও হতে পারেন…
_____________________________
বন্ধু বলে কথা..
তাই দিন রাত যেকোন সময় ফোনে কথা বলা যায়…
হোক রাত ১২টা অথবা মধ্যরাত..?
বন্ধুত্ব বলে কথা!
তাই ফোনের ঘন্টা পার হয়ে যায় তবু কথা শেষ হয়না!

এই বন্ধুত্বে গোপনীয়তা বলতে কিছু থাকেনা,
যত ধরনের মেয়েলি বিষয়ই হোক আর যত লজ্জার বিষয়ই হোক!

এই বন্ধুত্বে ১০টা ছেলের মাঝে ১টা মেয়ে, অথবা ১০টা মেয়ের মাঝে ১ছেলে থাকলেও কোন প্রবলেম নেই..…
দিব্যি ঘুড়ে বেড়ানো যায়…
চক্ষু লজ্জাও হয়না…

ছেলে-মেয়ে দুজন এতটাই ক্লোজ থাকে যে একজন আরেজনের হাত ধরে হাটলেও কোন প্রবলেম নাই…
বন্ধু বলে কথা!

ছেলেটা বেশী আহ্লাদে মেয়েটার পিঠে আদরের চড় দিলেও প্রবলেম নেই…
২গালে আদর করে- ‘গোগলি মোগলি মোস’ করলেও কোন প্রবলেম নেই…
বন্ধু বলে কথা!!

ছবি তোলার সময় ছেলেটা একপাশ থেকে মেয়ে টাকে জড়িয়ে ধরলেও প্রবলেম নেই…
বন্ধু বলে কথা… খারাপ উদ্দেশ্যে তো আর ধরছেনা!

মেয়েটার ফ্যামিলি থেকেও কিছু বলা হয়না..
কারন এ যুগের মেয়ে…
২/৩ টা ছেলে বন্ধু থাকতেই পারে..
এইটুকু স্বাধীনতা মেয়েটাকে তো দেওয়াই লাগে……

গ্রুপ স্টাডির নাম করে কয়েক জোড়া ছেলে মেয়ে একই রুমে দরজা বন্ধ করে স্টাডি করে!
পড়াশোনার অনেক চাপ! গ্রুপ স্টাডি ছাড়া কি হয় নাকি!
মায়েরা তাদের জন্য নাস্তা হাতে নিয়ে দরজা খোলার জন্য ডাকে!
ছি… কি নির্লজ্জতা!

রাত-বিরাতে ফ্রেন্ডস গেট টুগেদার/বারবিকিউ পার্টি!!
বন্ধুরা একসাথে.. বিশেষ কিছু না করলে বা বিশেষ কিছু না খেলে ক্যামনে কি!!!
বাবা/মা জানেই না পার্টির নামে তার সন্তান কি করছে/কি খাচ্ছে!!!

একেই বলে এ যুগের বন্ধুত্ব!
বন্ধুত্ব না বলে স্পেশাল নির্লজ্জতা বলা যায়!
কতিপয় ধার্মিক ভাই/ বোন আবার বলেন, কোরআন-হাদিস আমরাও পড়ি,কোথায় আছে যে বন্ধুত্ব করা যাবেনা?
কোথায় আছে বন্ধুত্ব হারাম?

পর্দার আয়াত গুলো ভাল মত অধ্যয়ন করলেই একজন সাধারন মানুষ ও এই সিদ্ধান্ত নিতে পারবে যে গায়রে মাহরামের সাথে প্রেম/বন্ধুত্ব/ভাইয়ের মত/বোনের মত এসবই হারাম সম্পর্ক!

দেখুন কোরআনে কি বলা হয়েছে…
…… “যদি তোমরা আল্লাহ পাককে ভয় কর তাহলে পর পুরুষের সাথে কোমল ও আকর্ষণীয় ভঙ্গিতে কথা বলো না।
নতুবা যার মনে রোগ (খারাপ বাসনা) আছে সে তোমাদের সম্পর্কে এক প্রকার লালসা পোষন করে বসবে!”
-(সূরা আহযাব-৩২)

পর পুরুষ বলতে ঐ বন্ধু/প্রেমিক/
ভাইয়ের মত পুরুষদেরকেই বুঝানো হয়েছে…
কোরআনুল কারীমে আল্লাহ রব্বুল ‘আলামীন যেখানে পর-পুরুষের সাথে কথা বলতেই নিষেধ করেছে যেখানে বন্ধুত্ব হারাম নাকি হালাল সে যুক্তি খোঁজা ছল-চাতুরী করে হলেও হারাম কে হালাল করার পন্থা অন্বেষণ বৈ কিছু নয়…

ইসলাম পর পুরুষের সাথে কোমল স্বরে কথা বলারও অনুমোদন দেয়না!!
আর ছেলে বন্ধুর স্থান কিভাবে হবে??

Share this Post
Scroll to Top